Team Bangladesh

ইংল্যান্ডের মাটিতে বিশ্ব আসরে বাংলাদেশ খেলবে দুটি ভিন্ন ডিজাইনের জার্সি গায়ে। একটিতে থাকবে লালের প্রাধান্য, অন্যটি সবুজ। মাশরাফী-সাকিব-তামিমদের জন্য জার্সি তৈরি করেছে স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজ। শিগগিরই পাওয়া যাবে নির্ধারিত আউটলেট ও অনলাইনে। টাইগারদের ম্যাচ জার্সি ছাড়াও পাওয়া যাবে অনুশীলন জার্সি, ক্যাপ।

ম্যাচ জার্সির দাম ধরা হয়েছে ১১৫০ টাকা। অতীতে জাতীয় দলের অফিসিয়াল রেপ্লিকা জার্সি বানানো হত অল্প পরিমাণে। যা সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে পৌঁছাত না। এবার সবার চাহিদা মেটানোর কথা ভাবছে বিসিবি। দুই-একদিনের মধ্যেই বাজারে ছাড়া হবে।

আগামী ১ বছর বাংলাদেশ দলের জার্সি বিক্রির স্বত্ব পেয়েছে স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজ। পোশাক বিক্রির ব্যবসা করে এমন কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তারা জার্সি পৌঁছে দেবে দেশের অগণিত মানুষের কাছে।

পোশাকের ব্র্যান্ড অঞ্জনস ও জেন্টল পার্কের প্রায় শতাধিক আউটলেটে বিক্রি হবে বাংলাদেশ দলের জার্সি। থাকছে অনলাইনে কেনা সুযোগও। ক্রিকশপ বিডি ও জার্সি ফ্রিক বিডি; এই দুই অনলাইন প্রতিষ্ঠান তাদের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে জার্সি বিক্রি করবে। এছাড়া ডিমানি অ্যাপের মাধ্যমেও ক্রেতারা জার্সি কিনতে পারবেন। আর সারা দেশের ক্রিকেট ভক্তদের মধ্যে জার্সি ছড়িয়ে দিতে আলাদাভাবে কাজ করবে রবিন স্পোর্টস।

ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়া দর্শকদের জন্যও ম্যাচ ভেন্যু থেকে বাংলাদেশ দলের জার্সি কেনার সুযোগ থাকছে। প্রবাসী দর্শকরা ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের বিভিন্ন জায়গা থেকে জার্সি সংগ্রহ করতে পারবেন। আর ম্যাচ ভেন্যু ও ভেন্যুর বাইরে আইসিসির অফিসিয়াল স্টোরেও টাইগারদের জার্সি বিক্রির পরিকল্পনা করেছে স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজ।

এ উপলক্ষে শনিবার বিকেলে গুলশানের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। যেখানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক জালাল ইউনুস ও আকরাম খান। স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজের কর্ণধার মেহতাবউদ্দিনসহ আরও অনেকে।

সংবাদ সম্মেলনে মেহতাবউদ্দিন বলেন, দুই-একদিনের মধ্যে বিসিবি আনুষ্ঠানিকভাবে জার্সি উন্মোচন করবে। তারপরই নির্ধারিত স্থান থেকে জার্সি সংগ্রহ করতে পারবেন সবাই।

আগামী ৩০মে থেকে ১৪ জুলাই, বেশ লম্বা সময়জুড়ে ইংল্যান্ডে চলবে ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। অংশগ্রহণকারী দশটি দলের বিশ্বকাপ ভাবনা শুরু হয়ে গেছে বেশ আগেই থেকে। খেলোয়াড়দের তালিকা চূড়ান্ত করে ফেলেছে সবকটি দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে ভালোভাবেই এগোনোর সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ। ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে তবেই মূল বিশ্বকাপে যাবে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দল। প্রস্তুতিসহ এবার মোট ১১টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ঘুরতে হবে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহরে।

তার আগে আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা ছাড়াও যেখানে আরেক প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগামী ১ মে আয়ারল্যান্ডের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে টিম টাইগার্স। ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষ করেই সরাসরি ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ মিশনে চলে যাবে মাশরাফীর দল।