‘টেস্ট বিশেষজ্ঞ’ তকমা বসে যাওয়া মুমিনুল সর্বশেষ বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেয়েছিলেন ২০১৪ সালের আগস্টে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ মাঠে নেমেছিলেন ২০১৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। তিন বছর পর টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে জায়গা করে নিলেও ম্যাচ খেলার সুযোগ তাঁর আদৌ হয় কি না, সেটিই দেখার।

তামিম ইকবালকে নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে রাখা হয়েছিল মুমিনুল হককে। ঊরুর চোট পুরোপুরি সেরে না ওঠায় তামিম দেশে ফিরে আসছেন আগামীকাল। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য নতুন করে দেশ থেকে কেউ যাচ্ছেন না। মুমিনুলকেই রাখা হয়েছে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে।

মুমিনুলেরটা তবুও বলা গেল, শফিউল ইসলাম কতদিন পর টি–টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেলেন সেটি বলা কঠিন। ২৮ বছর বয়সী এই পেসার সর্বশেষ আন্তর্জাতিক টি–টোয়েন্টি খেলেছেন ২০১৩ সালে মে মাসে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। আর লিটন দাস বাংলাদেশ টি–টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেলেন প্রায় দুই বছর পর।
সফরের দুই টি-টোয়েন্টির প্রথমটি হবে ২৬ অক্টোবর ব্লুমফন্টেইনে। পরেরটি ২৯ অক্টোবর পচেফস্ট্রুমে।

বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল
সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুমিনুল হক, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, মাহমুদউল্লাহ, লিটন দাস, নাসির হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, সাইফউদ্দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here